অভাবনীয় শান্তিপূর্ণভাবে চলেছে দুই সিটির ভোটের প্রচারণা

শনিবার রাজধানীর উত্তর ও দক্ষিন সিটির ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনী তফসিল ঘোষনার পর থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীরা বিরামহীন প্রচার-প্রচারনা চালিয়ে আসছে। রাজধানীর অলিগলিতে চষে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা। রাজপথ ছেয়ে গেছে নানা ধরনের পোষ্টারে। অবস্থা এমনই যে পোষ্টারের কারনে অলিগলির রাস্তার উপরে ছাদের মত অবস্থ তৈরী হয়েছে। রাস্তায় দাঁড়িয়ে আকাশ দেখা যায় না। সকল দলের প্রার্থীদের পোষ্টার পাশাপাশি শোভা পাচ্ছে। এবার প্রচারনায় ভিন্নমাত্রা যোগ করেছে প্রচারনায় নানা ধরনের গান। বিভিন্ন গানের সুর নকল করে এই সমস্ত ডিজিটাল প্রচারনার গান বানানো হয়েছে। শহরের অলিগলিতে সকাল থেকে রাত অবধি বাজছে প্রচারনার গান।

নজিরবিহীন শান্তিপূর্ণভাবে চলছে এই প্রচারনার কাজ। নির্বাচনী প্রচারনায় এমন শান্তিপূর্ণ অবস্থা বিগত ৩০ বছরের নির্বাচনগুলিতে দেখা যায়নি। এক প্রার্থী আরেক প্রার্থীর বিরুদ্ধে কুৎসা রটাচ্ছেন না। এমনটি এবারই দেখা যাচ্ছে। দু-একটি তুচ্ছ ঘটনা বাদ দিলে পরিবেশ অত্যান্ত শান্তিপূর্ণই আছে। নির্বাচনে এমন শান্তিপূর্ণ সহ অবস্থান অত্যান্ত বিরল ঘটনা আমাদের নির্বাচনগুলিতে। কোন দলই অপর দল কিংবা প্রার্থীর বিরুদ্ধে তেমন কোন গুরুতর অভিযোগ দায়ের করতে পারছে নির্বাচন কমিশনে। যদিও বিএনপি প্রার্থীদের পক্ষ থেকে আওয়ামীলীগ প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ জানানো হচ্ছে নির্বাচন কমিশনে। এটি আসলে সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে চাপে রাখার কৌশল বলেই অনেকে মনে করছেন।

দুই সিটির সম্পূর্ণ নির্বাচনই এবার অনুষ্টিত হবে ইভিএমের মাধ্যমে। ইভিএম আধুনিক ভোটিং মেশিন। ইভিএম নিয়ে বিএনপি বরাবরই আপত্তি জানিয়ে আসছে। এটিও নির্বাচন কমিশনকে চাপে রাখার কৌশল বলে অনেকে মনে করছেন। অপরদিকে বিএনপি প্রার্থীরা যদি নির্বাচনে হেরে যায় তাহলে ইভিএম এর মাধ্যমে ডিজিটাল কারচুপির অভিযোগ আনবে। তাই আগে থেকেই এর ক্ষেত্র প্রস্তুত করছে বিএনপি। তবে সার্বিক অবস্থা বিবেচনায় আনলে মনে হয় শনিবার দুই সিটির নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ হবে। ভোটাররা এই নির্বাচনে অবাধে ভোট দিতে পারবে।

দুই সিটির নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে। তবে লড়াইটা আতিকুল ইসলাম ও তাবিথ আওয়াল এবং ফজলে নুর তাপস ও ইসরাক হোসেনের মধ্যই সীমাবদ্ধ থাকবে। দুই সিটির ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করে শনিবার তাদের নগর পিতা নির্বাচন করবেন। কারা হবেন উত্তর ও দক্ষিন সিটির নগর পিতা তা শনিবার রাতেই জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *