কট্ট্রর ছাত্রদল আর ছাত্রশিবির হয়ে গেল সাধারন ছাত্র, ঢাবি টু ঝিগাতলা অভিযান

নিউজ ডেস্কঃ বিডি খবর ৩৬৫ ডটকম

গতকাল সকাল ১১টায় রাজধানীর শাহবাগ এলাকায় জমায়েত হয় একদল ছাত্র ও ছাত্রলেবাসধারী। আসলে এরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ রাজধানীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদল আর ছাত্র শিবিরের নেতাকর্মী ও সমর্থক। এছাড়া স্কুল পোষাকধারী কিছু অছাত্রও সেখানে ছিল। সব মিলিয়ে প্রায় ৪/৫ শত মাসুম বাচ্ছা হবে।

পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী এরা শাহবাগে জমায়েত হয়ে সাইন্স ল্যাবেরদিকে মিছিলসহ রওনা দেয়। সাইন্সল্যাবে পুলিশ এদের বাধা দিলে এরা পুলিশকে জানায় জিগাতলা মোড় পর্যন্ত যেয়ে ইউ টার্ন নিবে। জিগাতলা যাওয়ার পর এরা আবার সেখানকার পুলিশ ব্যারিকেড ভেঙ্গে অধুরেই ধানমন্ডি ৩ নাম্বারে প্রাইম মিনিস্টারের পলিটিকেল অফিসেরদিকে যাওয়ার চেষ্টা করে ও সেখানে অবস্থানরত পুলিশের সাথে ধাক্কাধাক্কি শুরু করে দেয়। এই তথাকথিত সাধারন ছাত্ররা কেনো ঐ অফিসের দিকে যাবে তা পাঠক নিজেরাই অনুমান করুন।

এই অবস্থায় পুলিশ আইন শৃংঙ্খলা রক্ষার্থে এই সোনার ছেলেদেরকে পেদানি দেয় খুব শক্তভাবে। পেদানি খেয়ে মাসুম বাচ্চারা পালাতে থাকে। ছত্রভঙ্গ হয়ে পিছু হটে। সেখানে সাদা পোষাক ও পোষাকধারী দুই ধরনের পুলিশই ছিল। সাদা পোষাকধারী পুলিশগন বেশ মারমুখী ছিল। ছত্রভঙ্গ হয়ে এরা গুজব ছড়াতে থাকে ছাত্রলীগ সাধারন ছাত্রদের মিছিলে হামলা করেছে। প্রধানমন্ত্রীর অফিসে এই মাসুম দুধের বাচ্চারা হামলা করবে। সেখানে যদি ছাত্রলীগের ছেলেরা থেকে থাকে তা হলে এদের উচিত ছিল দুধের বাচ্চাদের প্রতিহত কিংবা পেদানি না দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অফিসে হামলায় সহযোগিতা করা! কেননা এরাতো দুধের বাচ্চা!

 

বিদ্রঃ মাসুম দুধের বাচ্চা বললাম এই কারনে ইদানিং এক শ্রেনীর বিশেষ খালাম্মা এই ক্যাডারদেরকে মাছুম দুধের বাচ্চা বলে প্রচার করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *