সারাদেশে মাদক ব্যবসায়ীদের চোখে সরিষাফুল

নিউজ ডেস্কঃ বিডি খবর ৩৬৫ ডটকম

সারাদেশে মাদক ব্যবসায়ীরা দিশাহারা হয়ে পড়েছে। যেন এদের কিয়ামত শুরু হয়ে গেছে। এদের চেইন অব কমান্ড একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছে। মাদকের বড় বড় গডফাদাররা নিজেরাই আছে দৌড়ের ওপরে। কখন যে কি হয়ে যায়, ভেবে কুলকিনারা পাচ্ছে না। তাই এই ব্যবসার সাথে জড়িত সকলেরই আহার নিদ্রা হারাম হয়ে গেছে। সারাদেশে মাদক বিরোধী অভিযান শুরুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ৬০ জনের ওপরে মাদক ব্যবসায়ী বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। গতকাল রাতেও ১১ জন মাদক ব্যবসায়ী ক্রস ফায়ারে নিহত হয়েছে।  এ ব্যপারে আইন শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কিংবা সরকার কাউকে ছাড় দিচ্ছে না। সরকার এই ব্যপারে কঠোর অবস্থানে আছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আমরা জঙ্গি ও সন্ত্রাস নির্মূল করেছি, মাদকও নির্মূল করবো। বাংলাদেশ হবে মাদক ব্যবসায়ীদের জন্য বসবাসের অযোগ্য স্থান। তবে অধিকাংশ স্থানে এই ব্যবসা চলে আইন শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কিছু সদস্যের সরাসরি নিয়ন্ত্রনে। প্রভাবশালী কর্মকর্তারা অফিসে বসেই নিয়মিত মাসুহারা পাচ্ছেন। তথা কথিত আইন শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের কারনেই এই ব্যবসা আরো ব্যপক বিস্তার লাভ করেছে। ইতিমধ্যই গোয়েন্দা তথ্যে এই বিষয়টি বেড়িয়ে এসেছে।

এদিকে মাদক বিরোধী অভিযান শুরু হওয়ার পর থেকে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ীরা গা ঢাকা দিয়েছে। এদের অনেকে ইতিমধ্যই দেশের বাহিরে চলে গেছে। আবার অনেকে পালাবারও পথ খোজে পাচ্ছেনা। গোয়েন্দা তথ্যে বেড়িয়ে এসেছে, টেকনাফের মাদক ব্যবসায়ী ও গডফাদার্রা এখন রাজধানীতে আত্নগোপনে আছেন। তবে মাদক ব্যবসায়ীরা দেশের ভিতরে যেখানেই আত্নগোপনে থাকুক না কেন, আইন শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীন হয়ে আসছে।  অচিরেই বাংলাদেশ থেকে মাদক ব্যবসা নির্বাসনে যাবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *