দেহ ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ছে রোহিঙ্গা নারীরা

নিউজ ডেস্কঃ বিডি খবর ৩৬৫ ডটকম

রোহিঙ্গা নারীরা অনৈতিক দেহ ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ছে। এক শ্রেনীর দালাল চক্র এদেরকে এ পথে নামতে বাধ্য করছে। দালালদের মধ্য রোহিঙ্গা ও স্থানীয় বাঙ্গালীরা রয়েছে। এই দালালরা অভাবগ্রস্থ রোহিঙ্গা নারীদের আবার অন্য দালালের কাছে কৌশলে বিক্রি করে দিচ্ছে। বিবিসির এক অনুসন্ধানে এমনটিই জানা গেছে।

রোহিঙ্গা নারীরা পদে পদে নিগ্রহের শিকার হচ্ছে। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ১৫ থেকে ২০ বছরের রোহিঙ্গা মেয়েরা ঘুরে বেড়াচ্ছে। বিশেষ করে রাতের বেলাতেই এদের বেশী দেখা যায়। দালালরা অতি কৌশলে রোহিঙ্গা মেয়েদের কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে নিয়ে নানা কৌশলে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করছে। ১৭ বছরের এক রোহিঙ্গা মেয়েকে একটি হোটেলে চাকরী দেওয়া হয়েছে। দিনের বেলা মেয়েটি কাপড় ধোয়ার কাজ করে। কিন্তু রাতের বেলায় তাকে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করা হয়। মেয়েটি জানায়, রাতের বেলা তাকে ঘুম থেকে টেনে তুলা হয়। তারপর মুখ ঢাকা ২/৩ জন তার ওপর ঝাপিয়ে পড়ে। তাতে তার খুব কষ্ট হয়। তাকে জোড় করে ঔষধ খাওয়ানো হয়।

আরেকটি মেয়ে জানিয়েছে, মিয়ানমারের সেনাবাহিনী তার বাবাকে গুলি করে মেরে ফেলে। তারপর সে জীবন বাঁচাতে নৌকায় করে বাংলাদেশে আসে। নৌকাতেই ধর্ষনের শিকার হয়। নৌকার মাঝি তাকে জোড় করে ধর্ষন করে। এই রোহিঙ্গা বোনেরা কিংবা মায়েরা জীবন ও সন্ত্রম বাঁচাতে বাংলাদেশে আসে। কিন্তু এখানে এসেও কিছু রোহিঙ্গা দালাল ও স্থানীয় বাসিন্দাদের কারনে তারা বিপদে পড়ে বিপথগামী হচ্ছে। আইন শৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এই বিষয়ে আরও তৎপর থাকা প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.