জর্ডানের রানী বলেছেন রোহিঙ্গাদের সঙ্গে যা ঘটেছে তা অমানবিক

নিউজ ডেস্কঃ বিডি খবর ৩৬৫ ডটকম

জর্ডানের রানী রানিয়া আল আব্দুল্লাহ বলেছেন, রোহিঙ্গাদের সাথে মায়ানমারের সেনাবাহিনী যে আচরন করেছে তা অমানবিক। যে ভাবে নির্যাতন করা হয়েছে তা আয়ামে জাহেলিয়াতকেও হার মানায়। তাই বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গাদের পাশে থাকা উচিত। জর্ডান নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের পাশে আছে, এ কথা বলতে আমি এখানে এসেছি। তিনি আজ দুপুরে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, তথ্যমতে যে পরিমান রোহিঙ্গা কক্সবাজারের বিভিন্ন ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে তা এখানকার স্থানীয় লোক সংখ্যার দ্বিগুন। এখানকার লোকজনের নানা রকম সমস্যা থাকার পরও তারা মিয়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে। যা বিশ্ববাসীর প্রশংসা কুড়িয়েছে।

তিনি মানবিকতা রক্ষায় বাংলাদেশের পাশে দাঁড়াতে সবার প্রতি অনুরোধ করে বলেন, যারা এখানে আশ্রয় নিয়েছে তাদের অধিকাংশই নারী-শিশু ও বৃদ্ধ। তিনি বলেন, জাতিসংঘের উচিত এদের বিশেষভাবে দেখশুনা করা। তিনি রোহিঙ্গাদের সম্মানজনক ও নিরাপদ প্রত্যাবাসনের ব্যবস্থা করতেও জাতিসংগের প্রতি অনুরোধ জানান।
দুপুর ১২টা ৩৫ মিনিটে জর্ডানের রানী রানিয়া উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পৌঁছে রোহিঙ্গা বস্তিতে স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক এনজিও পরিচালিত স্কুল গুলি পরিদর্শন করেন। রোহিঙ্গা শিশুদের সঙ্গে খেলা করে তিনি তাদেরকে আনন্দও দেন। জর্ডানের রানী রানিয়া আবদুল্লাহ জাতিসংঘের মানবিক সংস্থাগুলোর পরামর্শক ও ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটির (আইআরসি) একজন বোর্ড সদস্য।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *