ঈদের পরে সরকারকে বেকায়দায় ফেলার প্রথম নাটক মঞ্চস্থ

নিউজ ডেস্কঃ বিডি খবর ৩৬৫ ডটকম

বিএনপি নেতারা বিভিন্ন মিটিং ও আলোচনা সভায় বলেছিলেন ঈদের পরে তারা সরকার বিরোধী আন্দোলনে যাবেন। তারা তাদের কথা রেখেছেন। আর এ আন্দোলনের শুরু হল প্রাবন্ধিক ও কবি ফরহাদ মজহার অপহরন নাটক দিয়ে। এ নাটকের শুরুতেই বিএনপি নেতা রিজভী আহমেদ বলেছিলেন ফরহাদ মজহারকে সরকারের লোকেরা উঠিয়ে নিয়ে গেছেন। অর্থাৎ তিনি বলতে চেয়েছিলেন তাকে সরকারের কোন এজেন্সী তুলে নিয়ে গেছে।

প্রশ্ন হল নিখোঁজের পরপরই তিনি কি করে জানলেন ফরহাদ মজহারকে সরকারের লোকজন তুলে নিয়ে গেছে? এটা একটা পরিকল্পিত নাটক বলেই রিজভী বলতে পেরেছেন। হয়ত সরকারকে চাপে ফেলার জন্য রিজভীরা এ নাটক সাজিয়েছিলেন। স্বেচ্ছায় আত্নগোপনে থেকে সরকারকে বেকায়দায় ফেলাই হয়ত এর উদেশ্য ছিল। কিন্ত সরকারের আইনশৃংঙ্খলা বাহিনী অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে অতি অল্প সময়ের মধ্যেই খো্ঁজে বের করতে পেরেছে ফরহাদ মজহারকে। ফলে এ নাটকের যবনিকা ঘটলো এখানেই। দেশবাশীও বেচেঁ গেলেন এই জন্য যে তাকে খোজেঁ পাওয়া না গেলে হয়ত অযাচিত কোন কর্মসূচীর কবলে পড়তে হত দেশবাশীকে।

ফরহাদ মজহারকে উদ্ধারের পর রাত একটার দিকে খুলনায় এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি দিদার আহমেদ বলেন “উদ্ধারের সময় মি. মজহারের কাছে একটি ব্যাগ পাওয়া গেছে যাতে দৈনন্দিন ব্যবহারের জিনিসপত্র ছিল।” অর্থৎ সে ব্যাগে ট্রাভেল করার সময় যে সমস্ত জিনিস সচারাচর ব্যবহার করা হয় ঠিক সে ধরনের জিনিসই রয়েছে। তাতে তারা ধারনা করছেন ফরহাদ মজহার স্বেচ্ছায়ই বের হয়েছেন। তাকে কেউ উঠিয়ে নিয়ে যায়নি বা অপহরন করেনি। আর অপহরন করলে তিনি নিত্য ব্যবহার্য জিনিসপত্র ব্যাগে করে নিয়ে যেতেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *